1. rony07557@gmail.com : admin :
October 22, 2020, 5:17 pm
শিরোনামঃ
১৫ অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র চট্টগ্রামে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে প্রশাসনের মাইকি যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ককে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়ার অভিযোগ নেত্রকোনায় পানিতে ডুুুবে দুই শিশুর মৃত্য হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সাত দিনের আলটিমেটাম মান্নার (ভিডিওসহ দেখুন) কিশোরগঞ্জে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহতের পরিবারকে দেড় লাখ টাকা অনুদান প্রদান জামালপুরের ডিসির কায়দায় এবার আ’লীগের এমপির নারী কেলেঙ্কারি নেত্রকোনার মদনে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭ উত্তাল ময়মনসিংহ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা খুন; বিক্ষোভ-অগ্নিসংযোগ নতুন দ্বারা রাজনৈতিক দল গঠন চলবে সকলের অনুদানে : ভিপি নুরু ও রাশেদ নেত্রকোণার বারহাট্টায় ট্রেনে কাটা পড়ে তিন জনের মৃত্যু (ভিডিওসহ দেখুন)

স্বাধীনতার ৪৯ বছর পর এলাকাবাসি পেল পাকা সড়ক

নেত্রকোনা প্রতিনিধি
  • Publishe Time, Thursday, October 8, 2020,
  • 50 0 view

নেত্রকোনা সদর উপজেলার ১০ নং রৌহা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের আমলি কেশবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে নতুন বাজার পর্যন্ত রাস্তাটি ছিল কাঁদা বড় বড় গর্ত খানা খন্দে ভরপুর। সম্প্রতি ইউনিয়ন পরিষদের এল জি এস পির অর্থায়নে প্রায় সাতশ ফুট ঢালাই করে রাস্তা তৈরি করে ব্যাপক উত্‍সাহ-উদ্দীপনায় এলাকাবাসী থেকে শুরু করে স্কুল মাদ্রাসা ও মসজিদে আসা মুসল্লিরা।

স্বাধীনতার ৪৯ বছর পার হলেও এই রাস্তাটির জন্য সমস্যায় পড়তে হত এলাকাবাসীর, বিশেষ করে স্কুল মাদ্রাসা ও মসজিদের মুসল্লিদের চলাচলের, বর্ষাকালে এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করা অনুপযোগী ও দূষ্কর হয়ে উঠেছিল। সম্প্রতি রাস্তাটি পাকা হওয়াতে এলাকাবাসীর মাঝে খুশির জোয়ার বইছে আমলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র বায়জীদ হাসান জয় জানায় এই রাস্তা দিয়ে স্কুলে যেতে আমাদের ড্রেস নষ্ট হয়ে যেত খুব সমস্যার মধ্য দিয়ে আমাদের স্কুলে যেতে হত রাস্তাটি পাকা হওয়াতে আমরা বিরাট খুশি।

বাজে আমলি গ্রামের মসজিদের মুসল্লি মোঃ হরমুজ আলী( ৭০) আক্ষেপ করে বলেন, কাঁদা ও বড় বড় গর্তের কারনে আমরা মসজিদে গিয়ে নামাজ পড়তে পারি নাই দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষিত এবার রাস্তাটি পাকা হওয়াতে আমরা মসজিদে গিয়ে জামাতের সহিত নামাজ পড়তে পারবো।

সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ আমিনুল হক টিপু বলেন, নতুন রাস্তা তৈরি হওয়ায় তারা খুশি।খানাখন্দে ভরা জল কাদায় ভর্তি ওই রাস্তায় যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল। যা কয়েক দশকেও পাকা হয়নি। এখন পাকা হওয়ায় তারা খুশি। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মোঃ আজিজুল হক জজ মিয়া বলেন, এলজিএসপির প্রকল্পের মাধ্যমে এ কাজটি তৈরি হচ্ছে। দীর্ঘ পঞ্চাশ বছরেরও বেশি সময় ধরে এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতে সাধারণ মানুষকে চরম সমস্যার সম্মুখীন হতে হতো।

এলাকাবাসীর দুঃখ কষ্ট লাগব হওয়ার জন্য রাস্তাটি পাকা করন করা হয়েছে। রৌহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম বাতেন জানান রাস্তাটি দিয়ে যাতায়াত করা খুবই দুষ্কর হয়ে পড়েছিল, বিশেষ করে স্কুল মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রী সাধারন রোগী ও গর্ভবতি মহিলাদের দূর্দশা ও দূর্ভোগ লাগবে এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবীর প্রেক্ষিতে এল জি এস ফি প্রকল্পের অর্থায়নের আমি প্রায় সাতশ ফুট রাস্তা পাকা করে দিয়েছি।

 

অনুগ্রহ করে নিউজটা শেয়ার করুন, নিজে পড়ুন অন্যকে ও পড়তে সাহায্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো সংবাদ

© All rights reserved © 2019 দৈনিক সময় এক্সপ্রেস.

কারিগরি সহযোগিতায় দৈনিক সময় এক্সপ্রেস.